অদম্য ঈদ উদযাপন; ‌স্বপ্ন জয়ের গল্প – ৩

স্বপ্ন জয়ের গল্প – ৩
মোঃ জাকারিয়া ফারুক
সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, গ্লোবাল রেগুলেটরি কমপ্লায়েন্স; ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেড, ওরিয়ন গ্রুপ।

জাকারিয়া ফারুক

‘আমি যখন বিদ্যালয়ে প্রবেশ করি, অনেকটা ইমোশনাল হয়ে যাই। ভেতরটা খুব জ্বলে উঠল। নিস্তব্ধ হয়ে চারপাশ দেখছিলাম। এই আঙ্গিনার প্রতিটি স্তরে আমার কৈশোরের অনেক স্মৃতি ছডিয়ে ছিটিয়ে আছে, যা অনেক দূরে থেকেও মাঝেমাঝে অনুভব করি। শেষবার স্কুলে এসেছি অনেক আগে, প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের একটি ঈদ পুনর্মিলনীতে। আর আসা হয়নি। আজকের এই আয়োজন যারা করলে, তারা আমার খুব কাছের ছোট ভাই। এদের সুন্দর কাজগুলো ফেইসবুকে সবসময় আমি দেখি। এমন একটি সামাজিক সংগঠন আমার এলাকায় কাজ করছে দেখে আনন্দ লাগে। কৃতজ্ঞ থাকবো অদম্যের কাছে। আমাকে এখানে এনে সবার সাথে পরিচিত করানোর জন্য। স্বপ্ন জয়ের গল্প শুনাবে মনজুর এবং ফজলুল। আমি এমনি খোলামেলা কথা বলি সবার সাথে।’

– সফলতা বা সফল ব্যক্তি বলতে আসলে ঐ জন, যারা সমাজ আর দেশের জন্য কিছু করে যায়। আমি মনে করি এক্ষেত্রে তোমরাই একেকজন সফলতা লাভ করছো। হুম, ব্যক্তিগত জীবনে আমি মোটামুটি সফল। সফলতার একটি নিদর্শন ইতিমধ্যে প্রকাশ হয়েছে। আমার লিখা
“Solubility Enhancement of Fenofibrate by Solid Dispersion Technique” নামের একটি বই ইতিমধ্যে বের হয়েছে। 236 পৃষ্ঠার এই বইতে 62 টি research based formulation with 6 comparative study দেখানো হয়েছে। LAP LAMBERT Academic, OmniScriptum AraPers GmbH, Saarbrücken, Germany থেকে বইটি Published হয়েছে।
এছাডা এর আগে national & international journal a 15 টির মত research article publish হয়েছে। এগুলো মূলত national & internationally medicine নিয়ে যারা কাজ করে তাদের research এর ক্ষেত্রে খুবই important role play করবে।

– এখানে যারা ফার্মেসি নিয়ে পডছো বা সামনে পডার ইচ্ছে আছে, কিংবা কোর্স শেষে চাকরির জন্য আবেদন করবে, এ সকল ভাইদের আমি সবসময় সু-পরামর্শ এবং সহযোগীতা করব। আমি দেখতে পাচ্ছি, এখানে সবাই ছাত্র। যারা অধ্যয়নরত আছে, তাদের বলব, পডালেখা আর কঠোর অধ্যয়ন ছাডা কখনো সামনে এগুতে পারবে না। বর্তমান পরিস্থিতি অত্যন্ত প্রতিযোগীতামূলক। আজকের এই আয়োজনটাও তোমাদের উদ্দেশ্যে হচ্ছে। আমরা যারা পডালেখা করে এতটুকু এসেছি, আমাদের এতটুকু প্রেরণা দেয়ার মত কেও ছিলনা তখন। আমি মনে করি তোমরা আজ সব সুযোগটাই পাচ্ছো। তবে কাজে লাগানোটা হচ্ছে মেইন।

– অনেকেই সরকারি চাকরির জন্য অনেক টাকা ঘুষ দিয়ে হলেও স্বল্প বেতনে চাকরিতে যায়। এটা আমার কাছে বোধগম্য নয়। আমার মতে একমাত্র বিসিএস ক্যাডার ছাডা সব সরকারি চাকরি একটি বদ্ধের মধ্যে। তবে হতাশ না হয়ে যেকোন চাকরিতে জয়েন করতে পার। পাশাপাশি নিজের বেসিক জ্ঞান কাজে লাগিয়ে ছোট ছোট ব্যাবসা কর। এরকম হলে জীবনটাও উপভোগ্য হবে।

– শান্তিনীড সংগঠনের সভাপতি আশরাফ আমার কলেজ জীবনের ভালো বন্ধু। আজকে সে মীরসরাইতে সবচেয়ে দক্ষ সংগঠক এবং সফল ব্যাবসায়ী। ওর মুখেও অদম্যের প্রশংসা শুনেছি। ভালো লাগে নিজের পরিবারের কাউকে নিয়ে, নিজের এলাকার সংগঠন নিয়ে কেও প্রশংসা করে। তোমাদের সব ভালো কাজের সাথে থাকব সবসময়, এই প্রত্যাশা নিয়ে এখানে শেষ করছি।

উল্লেখ্য, গত ৪ সেপ্টম্বর অদম্য-২০০৫ ও অদম্য ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন আয়োজন করে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও স্বপ্ন জয়ের গল্প অনুষ্ঠানের। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে জাকারিয়া ফারুক তার গল্প তুলে ধরেন।

অনুলিখন : নিয়াজ মুহাম্মদ সাজেদ, সহ সভাপতি, অদম্য-২০০৫।