বিশ্বাসের স্বপ্ন, বিশ্বাসেই পূর্ণতা

নিয়াজ মুহাম্মদ সাজেদ

neaz

নিয়াজ মুহাম্মদ সাজেদ

কানন যেমন মনোহর হয়ে ওঠে বহু রঙের ফুলে, তেমনি ছোট ছোট প্রতিভা নিয়ে গড়ে ওঠেছি আমরা। আমরা সবাই অজপাড়া গাঁয়ের স্কুলের কতগুলো বাল্যবন্ধু। অনেক সাধনা, অনেক তিতিক্ষার ফলশ্রুতিতে আমরা এখন একই সুতোয় গেঁথে আছি। একটা স্বপ্ন, একটা ইতিহাস করার প্রত্যায় নিয়ে প্রাণের সংগঠন অদম্য-২০০৫ এ মিলিত হয়েছি।

প্রত্যেকটি মানুষের একান্ত ভূবনে নিজস্ব কিছু চিন্তা চেতনা লুকিয়ে থাকে, থাকে কিছু নিজস্ব ইচ্ছা। এসব ইচ্ছার মধ্য থেকে তৈরি হয় স্বপ্ন দেখা। স্বপ্ন ধীরে ধীরে বড় হয়। বড় পরিসরে এসে কারো কারো স্বপ্ন অপূর্ণ রয়ে যায়, কারো কারো ইচ্ছেও প্রকাশিত হয় না। আমরা অদম্য ২০০৫ এই পর্যন্ত প্রমাণ করে আসছি, লক্ষ্য স্থীর থাকলে স্বপ্ন অপূর্ণ হয় না, যার জ্বলন্ত উদাহরণ, ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বন্ধুরা এগার বছর পর মাত্র দুই মাসের মধ্যে আবদ্ধ হয়ে গেছি। আমরা বিশ্বাস করি আমাদের সবার মাঝে ছোট ছোট যে প্রতিভা রয়েছে তা একসাথে কাজে লাগালে যে কোনো অসাধ্য কাজও সাধন করা সম্ভব। বিশ্বাস করি, আমাদের মনের ভেতর লুকিয়ে থাকা ইচ্ছা শক্তি আর স্বপ্নের মোহটাকে জাগিয়ে আমরা পরিবর্তনের একটি আভাস দিতে পারবো।
এই লক্ষ্যে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছি। বন্ধুদের সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় মাত্র এক বছরের মধ্যে আমরা যে সকল কাজ করেছি তা সত্যিই বিষয়কর! নিজেদেরকে আত্মনির্ভরশীল করার প্রত্যায় নিয়ে অর্থনৈতিক সংগ্রাম করছি।

সর্বশেষ বলতে চাই, আমরা অদম্য ২০০৫ এর সকল বন্ধুরা একেকজন সমাজের একেকটি আইকন হতে চাই। আমরা বিশ্বাস করি, আমাদের মাধ্যমে আমাদের সমাজ ব্যবস্থার পরিবর্তন হবেই। যে ঐক্য আর ভালবাসার বন্ধনে আমরা একত্রিত হয়েছি এই ঐক্য এই বন্ধন এই ভালবাসার অন্য নাম প্রাণের সংগঠন অদম্য ২০০৫। অদম্য ২০০৫ একটি নতুন সূর্য । এ বিশ্ব নতুন সূর্যে আলোকিত হবেই। আমরা নিজেরাই আলোকিত করবো সমাজকে , দেশকে। যা যুগ যুগ ধরে একটি বার্তা হিসেবে সবার কাছে উদাহরণ হিসেবে থাকবে।

লেখক : সহ-সভাপতি, অদম্য-২০০৫।