বন্ধুত্বের এক মহা মিলনমেলা

হাসান আরিফ

hasan-f

হাসান আরিফ

বন্ধু ও বন্ধুত্ব কথাটি সত্যিই সুমধুর। এমন সব মায়া আর অকৃত্রিম ভালবাসা রয়েছে এতে জানা ছিলনা। এতটা মধুর ভালবাসায় মুগ্ধ হতেই হয়। এতটা পাবো কল্পনাও করিনি। যেদিন মনে হলো এক হবো সেদিন শুধু স্বপ্ন দেখলাম, ছোট বেলার বন্ধুদের নিয়ে মহা মিলনের ইতিহাস গড়বো। সেদিন মনে হয়েছিল সত্যি কল্পনা। তবে স্বপ্নটাকে যে আঁকড়ে ধরে বন্ধুরা সফলতার প্রান্তে এনে বন্ধুদের এক মহা মিলনমেলায় পরিণত করবে সেটি কল্পনা ও করিনি। বহুদূর আর বহু দূরত্বকে হার মানিয়ে হৃদয়ের কোঠরে এনে নাড়া দিল পরম আদরে।

এমন সব স্বপ্ন ঘিরে রেখেছিল যে, তা ধীরে ধীরে পূরণ হতে লাগলো অবলিলায়। মিলিত হওয়া আর একতার শক্তিটা যেন প্রমাণের অপেক্ষায় শুধু প্রহর গুণছে। বন্ধুত্বের পরম আদর স্নেহে সকল বন্ধু সকল বন্ধুর বিপদে আপদে জোয়ারের মত আন্তরিকতা ভাসিয়ে দিল। সকল কাজের মাঝেও অন্যরকম মানুষিকতায় মাতিয়ে রেখেছে মন প্রাণ। কাজ, খাওয়া, ঘুম ছাড়া বাকিটা সময় শুধু বন্ধু আর বন্ধুদের আদরের সংগঠন। সকল কাজের মধ্যমনি এখন অদম্য-২০০৫।

কেনইবা এতটা মহাপ্রাণ খুলে ডাকছি অদম্যকে, তার সফলতাকে! কারণ এরই মাঝে লুকিয়ে আছে আমাদের অর্থনৈতিক মুক্তির প্রেরণা, সময়ের স্বাধীনতার সান্নিধ্য। একটাই লক্ষ্য, ইতিহাস গড়বো, চির অমর হবো বন্ধুত্বের বন্ধনে। আর সকল কষ্টকে একপাশে রেখে সারাটি জীবন শুধু হাতে হাত রেখে আড্ডায়, ইবাদতে মশগুল থাকবো। এই-তো প্রত্যাশা। সকলের স্বপ্ব সার্থক হউক, উজ্জ্বল হউক আগামী ও আগামীর পথচলা।

লেখক : সাধারণ সম্পাদক, অদম্য-২০০৫।